• মঙ্গলবার ( ভোর ৫:৩৫ )
  • ৪ঠা আগস্ট ২০২০ ইং

» বক্স খাটের ভেতর থেকে ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তৈল উদ্ধার

প্রকাশিত: ১৬. এপ্রিল. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

এরফানুল করিম: রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকার হানিফ মিয়া নামক এক ব্যক্তির বসত বাড়ির শয়ন কক্ষের বক্স খাটের ভিতর থেকে বসুন্ধরা ব্র্যান্ডের টিসিবি পণ্য ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তৈল উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়েছে।

গতকাল ১৫ই এপ্রিল, ২০২০ বুধবার রাত ১০.০০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব মোহাঃ আবদুল আলীম মাহমুদ বিপিএম মহোদয়ের নির্দেশনায় অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) জনাব উত্তম প্রসাদ পাঠক এর নেতৃত্বে এসি (ডিবি) জনাব মোঃ আলতাফ হোসেন, ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) জনাব এবিএম ফিরোজ ওয়াহিদ, ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) জনাব রাজেশ কুমার চক্রবর্তী, এসআই মোঃ নাহিদ, এসআই ছাইয়ুম, এসআই সাদিকুল ও সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকার মধ্যপার্বতীপুর, ওয়ার্ড-১৭, রোড়-১/৪, বাড়ী-২২ ধৃত মোঃ হানিফ মিয়ার (৪৭) বসতবাড়ী তল্লাশী করে শয়ন কক্ষের বক্স খাটের ভিতরে রক্ষিত অবস্থায় উল্লেখিত  বসুন্ধরা ব্যান্ডের টিসিবি পণ্য ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১,২৩,৮০০/- টাকা।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আব্দুল আলীম মাহমুদ বলেন, বসুন্ধরা ব্র্যান্ডের টিসিবির বিপুল পরিমাণ তৈল হানিফ মিয়ার বাড়িতে মজুত রাখা হয়েছে। এমন সংবাদে ডিবির এডিসি উত্তম প্রসাদ পাঠকের নেতৃত্বে হানিফের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় তার শয়ন কক্ষের বক্স খাটের ভেতরে মজুত রাখা টিসিবির ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় হানিফ মিয়া ও লাল মিয়াকে আটক করা হয়।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত গরিবদের কাছে টিসিবি পণ্য ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করতে বলেছে সরকার। কিন্তু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লাভের উদ্দেশ্যে এসব পণ্য মজুত করছেন।

সূত্র: রংপুর মেট্রোপলিটিন পুলিশের ফেইসবুক পেইজ।

ফেসবুক থেকে কমেন্ট করুন।
Share Button

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৬৩ বার

Share Button